UnishKuri
Web-entertainment-2.jpg

  সরস্বতীপুজোর সেরা লুক!  

এই সরস্বতীপুজোয় নিজের ঝক্কাস লুকে হয়ে ওঠো ক্যাম্পাসের সেরা ডুড বা ডিভা! উপায় বাতলে দিলেন পারমিতা মুখোপাধ্যায়

এতদিন সরস্বতীপুজো শুধু বাঙালির প্রেমদিবস হিসেবেই খ্যাত ছিল। তবে একটু তলিয়ে ভাবলে বুঝতে পারবে যে শুধু প্রেম নয়, বরং ফ্যাশনের ক্ষেত্রেও কিন্তু এই দিনটা বেশ তাৎপর্যপূর্ণ। যদিও এইদিন ওয়েস্টার্নের চেয়ে দেশি সাজের কদর বেশি, তা বলে ১৯ ২০ সেই থোড় বড়ি খাড়া শাড়ি আর পাঞ্জাবি-পাজামার ভিড়ে হারিয়ে যাবে? মোটেই না! তোমাদের জন্য রইল নিজেকে ফ্যাশনে ভূষণে আলাদা করে তুলে ধরার একটা ব্র্যান্ড নিউ গাইড।

গ্ল্যামার কুইন
তোমার লুকে কিলো-কিলো গ্ল্যাম কোশেন্ট অ্যাড করতে শিফন শাড়ি এক্কেবারে সিদ্ধহস্ত। তবে তা যদি আরও দেড় গুণ বাড়িয়ে ফেলতে চাও, তা হলে ব্লাউজ়ের উপর সেই দায়িত্বখানি দিতেই পার। যদিও লোকের বিশ্বাস শিফনের সঙ্গে একটু খোলামেলা ব্লাউজ়ই বেশি মানায়, তবে ফুলস্লিভ বা জ্যাকেট স্টাইল ব্লাউজ় দিয়েও এক্সপেরিমেন্ট করলে কিন্তু বেশিই এগিয়ে থাকবে তুমি।
অ্যাকসেসরিজ়: এই স্টাইলের সবচেয়ে মজার কথা হল তুমি যে কোনও অ্যাকসেসরিজ়ই পড়ে ফেলতে পার এই। কুন্দনের কানবালিও যেমন এর সঙ্গে মানায় তেমন জাঙ্ক জুয়েলারিও। তবে জুতোর ক্ষেত্রে কিন্তু সাবধান! পিপ-টো স্টিলেটো বা পিপ-টো ছাড়া অন্য কোথাও কিন্তু পা গলাতে যেয়ো না ভুলেও…

দ্য বং হিরো
সারাবছর পাশ্চাত্য স্টাইলের নামে দিব্যি কাটলেও পুজোর দিনগুলোতে সব ছেলেরই একটু দেশি হয়ে ওঠার জন্য হাঁকপাঁক করে। তবে ওই, ভিড়ের মধ্যে হারিয়ে যাওয়ার ভয়টাও আবার গলা খাঁকাড়ি দেয় যে মাঝেমাঝে। তবে আমরা থাকতে চাপ কীসের? সাধারণ পাজামা-পাঞ্জাবি লুকের এক্স ফ্যাক্টর বাড়ানোর ফর্মুলা বলে দিচ্ছি কানে নিয়ে নাও এবেলা। একটা পাঞ্জাবি বা শেরওয়ানির সঙ্গে নর্মাল পাজামার বদলে পরে নাও একটা প্যালাজ়ো স্টাইল প্যান্ট বা ভেলভেট প্যান্ট কিংবা চিনোজ়। সঙ্গে ওড়নার বদলে জড়িয়ে নাও একটা এক কালারের স্টোল।

আঁতেল ম্যাডাম
সরস্বতীপুজো মানে ক্যাম্পাসে-ক্যাম্পাসে ঘোরা। আর কলেজ ক্যাম্পাসে যে আঁতেল ম্যাডামদের বেশ কদর একপাল্লা ভারীই থাকে সে তো সক্কলের জানা। এই স্টাইল আপন করে নিতে খাদি, কাঁথা, তসর বা যে কোনও হ্যান্ডলুম শাড়ি আপন করে নিতে পার। এখানেম ব্লাউজ়ের সঙ্গে খুব বেশি এক্সপেরিমেন্ট করার জায়গা নেই। স্লিভলেস থেকে ফুলস্লিভ সবকিছুই বেশ দৌড়বে।
অ্যাকসেসরিজ়: মাটির গয়না, জার্মান সিলভার বা রুপোর কস্টিউম জুয়েলারি, বিড্স ইত্যাদি দারুণ যাবে এই লুকের সঙ্গে। একটু এক্স ফ্যাক্টর বাড়াতে চাইলে বোহেমিয়ান অ্যাকসেসসরিজ় ম্যাচ আপ করে নিতে পার লুকের সঙ্গে। জুতোর ক্ষেত্রে মোজরি, ইন্ডিয়ান স্টাইল ব্যালেরিনা বা লেদার চপ্পল চলতে পারে। তবে ফ্লিপফ্লপ জাতীয় ফাঙ্কি স্টাইল এড়িয়ে চলাই মঙ্গল। সঙ্গে একটা ঝোলা ব্যাগ নিয়ে নিলে এক্কেবারে ষোলোকলা পূর্ণ হবে!

ফরমাল ফেস্টিভ কম্বো
ফরমাল ছেড়ে যে সব পাবলিক অন্য কোনও পোশাকের কথা জন্মেও ভাবতে পারে না তারা এই লুক ট্রাই করতে পার সরস্বতী পুজোর দিন। তোমার ফরমাল শার্টটি পরো, তবে ফরমাল ট্রাউজ়ারটি পোরো না। বরং লিনেন বা কটন প্যান্টস পরে ফ্যালো। আর তার উপর একটা নেহেরু জ্যাকেট। নেহেরু জ্যাকেট না থাকলে বন্‌ধগলাও পরতে পার। এক সঙ্গে ইন্ডিয়ান বা মোজরি স্টাইল চপ্পল পরলে বেশি মানাবে।

ইন্দো ওয়েস্টার্ন রক চিক
প্যান্ডেলে-প্যান্ডেলে ঘোরা নয়, বরং বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা মারা বা গিটার নিয়ে জ্যামিং করা যদি তোমার পছন্দ হয় তা হলে এই লুক আপন করে নিতেই পার। যাদের শাড়ি পরার কথা শুনলে গায়ে জ্বর আসে তারাও একবার এই লুক ট্রাই করে দেখতে পার। প্রথমে একটা জিন্‌স পরে নাও আর তার উপর একটা ম্যাচিং ক্রপ টপ। তারপর শাড়িটা নিয়ে প্রায় অর্ধেকটা কুচি দিয়ে ফ্যালো। সেই অংশটা গুঁজে নিয়ে বাকিটা আঁচলের মতো করে দিয়ে প্লিট করে পিন আপ করে নাও।
অ্যাকসেসরিজ়: যেহেতু এই লুকে ওয়েস্টার্ন স্টাইলের ইনফ্লুয়েন্স তুলনায় বেশি নজর কাড়ে এই লুকে, তাই ওয়েস্টার্ন স্টাইলের অ্যাকসেসরিজ় অনায়াসে চলতে পারে। জুতোর ক্ষেত্রেও কোনও বাধ্যবাদকতা নেই। এককথায় ব্যাপারটা পুরো বিন্দাস!

ক্যাজ় অ্যান্ড কুল ডুড
সরস্বতী পুজো বলেই যে এক্কেবারে সিলেবাস মেনে ইন্ডিয়ান বা ট্যাডিশানাল আউটফিট পড়তে হবে তার কি মানে আছে? এক্সপেরিমেন্টাল লুকও যে বাঙালি ছেলেরা দারুণ ক্যারি করতে পারে তা এবার দেখিয়ে দেওয়ার পালা! যোধপুরী প্যান্টস-এর সঙ্গে মানানসই একটা টি-শার্ট পরে নাও। এক রংয়ের হলে সবচেয়ে ভাল। এর সঙ্গে মোজরি বা ক্যানভাস দুটোই মানাবে।

ব্যাস, বন্ধু এবং বান্ধবীরা এবার নিজের সেরা লুক বেছে নিয়ে সেজে ওঠো এবছরের সরস্বতীপুজোয়, আর এই পঞ্চমীর সাজে বসন্ত ডেকে আনো!