UnishKuri
Web-entertainment-2.jpg

  সেলফি তোলা নাকি মানসিক বিকারের লক্ষণ…  

সারাদিন মোবাইল নিয়ে খুটখুট করা বা সেলফি তোলার জন্য বাবা-মায়ের কাছ থেকে ‘পাগল’ তকমা ১৯ ২০-দের কপালে হরদম জোটে। তবে ব্যাপারটা এবার আর হালকা ভাবে মোটেই নেওয়া যাবে না। কারণ আমেরিকান সাইকায়াট্রিক অ্যাসোসিয়েশনের রায় কিছুটা হলেও বাবা-মায়েদের পক্ষেই গিয়েছে। অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে ঘোষণা করা হয়েছে যে, বারবার সেলফি তুলে সেটা সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করার যে হিড়িক আজকের যুব সমাজের মধ্যে দেখা যায়, তা আসলে হল এক ধরনের মানসিক বিকারের লক্ষণ। বিকারটির নাম দেওয়া হয়েছে ‘সেলফিটিস’। এটি হল এক ধরনের ‘অবসেসিভ কমপালসিভ ডিসঅর্ডার’। এই ডিসঅর্ডারের আক্রান্ত হওয়ার মূল লক্ষণই হল দিনের মধ্যে বহুবার নিজের একাধিক ছবি তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় তা পোস্ট করা। মূলত এর থেকে একটা বাহবা কুড়োনোর প্রবণতা কাজ করে এদের মধ্যে। বিশেষত এর মাধ্যমে নাকি আত্মবিশ্বাস এবং ভালবাসা খুঁজে পাওয়ার চেষ্টা করে তারা। সেলফিটিসেরও নাকি তিনটে ভাগ রয়েছে। তার মধ্যে সবচেয়ে কমন হল বর্ডারলাইন সেলফিটিস। এরা আবার দিনে কম করে তিনটে সেলফি তোলে বটে কিন্তু তা সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে না।

কি, কোনও লক্ষণ কি একটু হলেও চেনা-চেনা ঠেকছে নাকি? তা হলে এক্ষুণি সতর্ক হয়ে যাও বন্ধু!