UnishKuri
Web3.jpg
Career Counselling
 
আমার বয়স ২৫। নিয়মিত চুলে ডিম এবং নারকেল তেল ব্যবহার করি। কিন্তু চুল পড়া কিছুতেই বন্ধ হচ্ছে না। এখন এমন অবস্থা হয়েছে যে মাথার সামনেটা প্রায় ফাঁকা হয়ে এসেছে। কী করব এখন?

সুরভি বন্ধ্যোপাধ্যায়, ই মেল

সারাবছর ধরে একটু-আধটু চুল পড়ার সমস্যা সকলেরই থাকে। তবে তোমার সমস্যার কথা শুনে মনে হচ্ছে যে তোমার ‘অ্যালোপেশিয়া’ হয়ে থাকতে পারে। মানসিক স্ট্রেস এবং টেনশনই এর কারণ হয়ে থাকতে পারে। অথবা হরমোনাল চেঞ্জের জন্যও এটা হতে পারে। আবার কোনও বংশগত সমস্যা বা পুরনো কোনও অসুখ থেকেও এই ধকনের চুলের সমস্যা তৈরি হতে পারে। এর জন্য অবশ্যই কোনও বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিতে হবে। তবে প্রথমেই মাথায় যে-কোনও ধরনের তেল লাগানো বন্ধ করো, কোনও রকম এক্সপেরিমেন্ট করা এখান ঠিক হবে না। প্যারাবেন ফ্রি মেডিকেটেড শ্যাম্পু ব্যবহার করো। তবে চিন্তার কিছু নেই। সঠিক ওষুধ, মেডিকেশন এবং এক্সারসাইজ়ের হাত ধরে এই সমস্যার সমাধান সহজেই সম্ভব।

HOMEMADE FACE SCRUB FOR INSTANT GLOW

প্রতিদিন ঝকঝকে-চকচকে ত্বক বজায় রাখেত স্ক্রাব কারাটা খুব জরুরি। স্ক্রাব করার ফলে ত্বক সহজেই এক্সফোলিয়েট হয়ে যায় অর্থাৎ ত্বকের মৃত কোষ দূর হয়ে বেরিয়ে আসে নতুন কোষ, এর ফলে ত্বকের উজ্জ্বলতাও বাড়ে এবং ত্বক থাকে নরম ও কোমল। প্রতি সপ্তাহে নিয়ম করে দু’ই থেকে তিন দিন স্ক্রাব করাটা দরকার। কিন্তু সমবসময় সালঁতে গিয়ে তো আর স্ক্রাব করা সম্ভব নয়, কারণ এটা বেশ সময় ও খরচ সাপেক্ষও। তাই বাড়িতে বসেই কিছু ঘরোয়া উপাদান দিয়ে ফেস স্ক্রাব করার সহজ উপায় রইল তোমাদের জন্য।

হলুদের ফেস স্ক্রাব: একটি পাত্রে এক টেব্‌লচামচ চালের গুঁড়ো, এক টেব্‌ল চামচ ময়দা, আধ টেব্‌লচামচ হলুদ দুঁড়ো এবং কিছুটা ঠান্ডা দুধ মিশিয়ে একটা প্যাক বানিয়ে নেবে। এই প্যাক মুখে এবং গলায় লাগিয়ে আঙুলের ডগা দিয়ে সারকুলার মোশনে হলকা মাসাজ করবে। এর পর ২০মিনিট রেখে জল দিয়ে ভাল করে ধুয়ে নেবে। এই প্যাক ত্বক পরিষ্কার করে, সান ট্যান দূর করে এবং ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতেও সাহায্য করে।

পেঁপের ফেস স্ক্রাব: কয়েক টুকরো পাকা পেঁপে নিয়ে তার সঙ্গে কিছুটা চিনি মিশিয়ে একটা পেস্ট তৈরি করে নেবে। এর পর জল দিয়ে মুখ ধুয়ে নিয়ে তিন থেকে চার মিনিট পেঁপের প্যাক দিয়ে মুখে ও গলায় মাসাজ করে নেবে। মাসাজ করার পর ১৫ মিনিট রেখে জল দিয়ে ভাল করে মুখ ধুয়ে নেবে। এই প্যাক ত্বককে ময়শ্চারাইজ় করতে সাহায্য করে এবং ত্বককে করে তোলে তুলতুলে। ড্রাই, নরমাল এবং সেনসিটিভ ত্বকের জন্য এই প্যাক খুব ভাল।

চন্দনগুঁড়োর ফেস স্ক্রাব: চন্দনগুঁড়ো, স্যাফরন এবং গোলাপজল এক সঙ্গে মিশিয়ে একটা প্যাক তৈরি করে নেবে। মুখ জল দিয়ে ধুয়ে নিয়ে এই প্যাক মুখে লাগিয়ে সারকুলার মোশনে মাসাজ করবে। এর পর ১০মিনিট রেখে ঠান্ডা জল দিয়ে ভাল করে মুখ ধুয়ে নেবে। এই প্যাক মুখের দাগ ছোপ, সান ট্যান দূর করে এবং ত্বককে করে তোলে ঝকঝকে।

আমন্ড ফেস স্ক্রাব: চার থেকে পাঁচটা আমন্ড বাদাম সারা রাত জলে ভিজিয়ে রেখে সেটা ভাল করে পেস্ট করে নেবে। এই পেস্টে দুধ মিশিয়ে একটা প্যাক তৈরি করে সেটা আঙুলের ডগা দিয়ে মুখে এবং গলায় ভাল করে মাসাজ করবে। এর পর কিছুক্ষণ রেখে জল দিয়ে ভাল করে ধুয়ে নেবে। এই প্যাক যেমন ত্বকের পুষ্টি যোগায় ও ত্বককে ময়শ্চারাইজ় করে। শুষ্ক ত্বকের জন্য এই প্যাক খুবই উপকারী।