UnishKuri
Web-entertainment-2.jpg
BEDWETTING বা NOC-TURNAL ENEURESIS

আমার বয়স ১৭ বছর। আমার বয়ফ্রেন্ডের ২২। আমরা শারীরিকভাবে মিলিত হতে চাই। কিন্তু এর আগেও অনেক ছেলের সঙ্গে আমার শারীরিক সম্পর্ক ছিল। আমার বয়ফ্রেন্ড কি সেটা বুঝতে পারবে? ও যাতে বুঝতে না পারে তার জন্য কি কোনও উপায় আছে?
দেবস্মিতা বিশ্বাস, ই মেল মারফত

শারীরিক মিলনের সঙ্গে-সঙ্গে যোনিদ্বারের কিছু পরিবতর্ন হতে পারে। যোনিদ্বার বা ভ্যাজাইনার মুখে হাইমেন বলে একটা খুব পাতলা পরদা থাকে, যা মিলনের সময় ফেটে অল্প রক্তপাত হতে পারে। তবে এটা যে হবেই তার কিন্তু কোনও মানে নেই। বারবার মিলনের ফলে যোনিপথ একটু আলগা বা ঢিলেঢালা হয়ে যেতে পারে। যে কারণে প্রথম মিলনে কারও-কারও যে ব্যথা হয় বারবার মিলনের ফলে তা ধীরে-ধীরে চলে যায়, ফলে মিলন সহজ হয়। তোমার বয়ফ্রেন্ডের এসব জানা থাকলে, সে হয়তো বুঝতে পারবে। তবে হাইমেন ছিঁড়ে যাওয়া বা না যাওয়ার সঙ্গে ভার্জিনিটির যে কোনও সম্পর্ক নেই, এটা সম্বন্ধে তোমার পার্টনার অবহিত কি না, সেটা জানাও প্রয়োজন। সঙ্গে এটাও বলে রাখি, একাধিক সঙ্গীর সঙ্গে অবাধ শারীরিক মিলনের ফলে নানা যৌনরোগ ছড়াতে পারে, তাই এ ব্যাপারে সাবধান থাকা উচিত। কন্ডোম ব্যবহার করলেও কিন্তু একশো শতাংশ ক্ষেত্রে যৌনরোগ এড়ানো যায় না।

আমার বয়স ২১। আমার সমস্যা হল, রাতে ঘুমের সময় মাঝেমধ্যেই বিছানায় টয়লেট হয়ে যাচ্ছে। খুব লজ্জায় পড়ে যাচ্ছি। কেন এরকম হচ্ছে বুঝতে পারছি না! এর কি কোনও প্রতিকার আছে?
সৌম্য বিশ্বাস, বেলগাছিয়া

তুমি সম্ভবত Bedwetting বা Noc-turnal eneuresis সমস্যায় ভুগছ। এই রোগে অনিচ্ছাকৃতভাবে টয়লেট হয়ে যায়। অনেক কারণে এই সমস্যা হতে পারে। যার মধ্যে প্রধান হল ইনফেকশন অর্থাত্‌ জীবাণু সংক্রমণ, আচরণে সমস্যা এবং মানসিক চাপ বা স্ট্রেস। পড়াশোনা বা বন্ধুদের নিয়ে কোনও মানসিক চাপে আছ কি না, জানতে পারলে ভাল হত। মাস্টারবেশন তোমার বয়সে যৌন বিকাশের অঙ্গ। এ নিয়ে অযথা মাথাব্যথা করার দরকার নেই। মন থেকে ভয় তাড়াও আর পড়াশোনায় মন দাও। কোনও শখ থাকলে সেটা আরও ভাল করে করতে চেষ্টা করো। নিয়মিত ব্যায়াম বা খেলাধুলো করবে। মানসিক চাপমুক্ত থাকাটাও অনুশীলন করতে হবে। নিজেকে বিশ্বাস করতে শেখো। নিজেকে সবল ভাবা অভ্যেস করলেও মনে জোর আসে। তবে একবার ডাক্তার দেখানো এবং ইউরিন টেস্ট করাটাও জরুরি। ইনফেকশন থাকলে ওষুধ খেতে হবে। এটা কিন্তু চিকিত্‌সা করলে সেরে যায়।